খুলনার সাবেক সাংসদ মিয়া গোলাম পরওয়ার আটক

download-12.jpg

নিউজ ডেস্ক, ডেইলি সুন্দরবন: সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যার দিকে রাজধানীর একটি বাসা থেকে জামায়াত ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ও সাবেক সংসদ সদস্য মিয়া গোলাম পরওয়ার সহ ৯জন নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন  গুলশান বিভাগের পুলিশের উপকমিশনার মো. আসাদুজ্জামান ।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রদ্রোহের ষড়যন্ত্র এবং দেশকে অস্থিতিশীল করতে তারা গোপন বৈঠকে মিলিত হয়েছিল। এমন খবর পেয়ে আমরা সেখানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করি।

গ্রেফতাররা হলেন, সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান, দলটির কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য আবদুর রব, সাবেক সংসদ সদস্য হামিদুর রহমান আজাদ, অধ্যক্ষ ইজ্জত উল্লাহ, ছাত্রশিবিরের সাবেক দুই কেন্দ্রীয় সভাপতি মোবারক হোসাইন ও ইয়াসিন আরাফাত।

এর আগে গোলাম পরওয়ার ২০০১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খুলনা-৫ আসন থেকে জামায়াতের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০১৬ সালের নভেম্বর থেকে ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত তিনি জামায়াতের নায়েবে আমির হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের সভাপতির দায়িত্বও পালন করেন।

অপরদিকে, সোমবার রাতে দলটির পক্ষ থেকে দলের সেক্রেটারি জেনারেল ও সহকারী সেক্রটারিসহ নেতাকর্মীদের আটকের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে জামায়াতে ইসলামী।  এতে অবিলম্বে নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, জামায়াতের নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবে ৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে সেক্রেটারি জেনারেল অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ারের সভাপতিত্বে এক বৈঠকের আয়োজন করা হয়। বৈঠক থেকে সরকার অন্যায়ভাবে জামায়াতের ৭ জন কেন্দ্রীয় নেতাসহ ১০ জনকে গ্রেফতার করে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, দেশে এখন এক বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি চলছে। সরকার দীর্ঘ এক যুগ ধরে জনগণের রাজনৈতিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে। কোনো দলকেই তাদের রাজনৈতিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে দিচ্ছে না। সরকারের সবচেয়ে বেশি জুলুম-নির্যাতনের শিকার হয়েছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী। জামায়াতের হাজার হাজার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করে নির্যাতন চালানো হয়েছে। অনেককে গুম করা হয়েছে এবং পঙ্গু করে দেওয়া হয়েছে। শত জুলুম বুকে ধারণ করে জামায়াত নিয়মতান্ত্রিকভাবে তার স্বাভাবিক রাজনৈতিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। বিশেষ করে করোনা ভাইরাসের ১৮ মাসে জামায়াত জনগণের পাশে দাঁড়িয়ে সেবা দেওয়ার চেষ্টা করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top