মহিলা অধিদপ্তরের সহায়তা তহবিল” এর ১১ লাখ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাতের মামলায় গ্রেফতার মো. বেলাল হোসেন

Kpqf9ukHkoCG3SYHChMj.jpeg

স্টাফ রিপোর্টার, ডেইলি সুন্দরবনঃ মহিলা অধিদপ্তরের অধিনে “কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মাদরাসা সহায়তা তহবিল” এর ১১ লাখ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাতের মামলায় গ্রেফতার মো. বেলাল হোসেন (৪০) কে বিচারক মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাহীদুল ইসলাম জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে । মামলার প্রধান আসামি মুসলমান পাড়া বাঁশতলা মোড়ের মো. আবুল হোসেন এর স্ত্রী মিনা বেগম (৪০) পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মোল্যা জুয়েল রানা জানান, ৮ সেপ্টেম্বর দুপুর দেড়টার দিকে নিরালা সাবেক কাঁচা বাজার এলাকা থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বেলাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বেলাল হোসেন নগরীর ৪০/১ রায়পাড়া মেইন রোডের আজম খান এর বাড়ির ভাড়াটিয়া এবং বাগেরহাট জেলার শরণখোলা থানার রায়েন্দা বাজার এর আব্দুল কাদের খান এর ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, মহিলা অধিদপ্তরের অধিনে “কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মাদরাসা সহায়তা তহবিল” হতে সাহায্য দেয়ার কথা বলে আসামিরা মুসলমান পাড়াসহ ২৪নং ওয়ার্ডের প্রায় ১৫০ থেকে ২০০ জন মহিলাকে একাউন্ট খোলায়। ২০২০ সালের জুন মাসে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড ময়লাপোতা সন্ধ্যা বাজার শাখায় একাউন্ট খুলতে প্রত্যেকের কাছ থেকে ৩০ টাকা এবং ফরম পুরণে আরো ১০০ টাকা করে নেয়া হয়। প্রতি মাসে প্রতিজন ২৪০০ টাকা করে ৪ মাসের জন্য প্রত্যেক জনের একাউন্টে ৯৬০০ টাকা আসে। ৩০, ৩১ আগস্ট ও ১ সেপ্টেম্বর মিনা বেগম ও বেলাল হোসেন মহিলাদের নিয়ে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলণ করে।

কিন্তু প্রতিজনের নামে আসা ৯৬০০ টাকা থেকে মাত্র ১৮০০ টাকা দেয়া হয়। কম দেয়ার কারণ জিজ্ঞাসা করলে তারা জানায় আরো একটি অনুদানের জন্য খরচ লাগবে। সে সময় তাদরেকে ৪০হাজার টাকা করে দেয়া হবে। পরবর্তীতে সকলে তাদের সমস্ত টাকা ফেরত চাইলে মিনা তাদেরকে হুমকি দেয়। এর জের ধরে নাজমা বেগমকে কোন টাকা দেয়া হয়নি। এঘটনায় স্বপ্না, জোৎসা ও হালিমাকে স্বাক্ষী করে মুসলমান পাড়া বাঁশতলা মোড়ের বজলুর রহমান এর বাড়ির ভাড়াটিয়া মো. আবু সাঈদ খানের মেয়ে মরিয়ম বেগম বাদী হয়ে মিনা বেগম ও মো. বেলাল হোসেন এর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ২/৩ জনের বিরুদ্ধে খুলনা থানায় মামলা দায়ের করেছেন যার নং-১২।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top