টিকাবঞ্চিতদের জন্য গণটিকা মঙ্গলবার

images-1.jpg

খবর বিজ্ঞপ্তি, ডেইলি সুন্দরবনঃ রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এক ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর দেশব্যাপী করোনা ভাইরাসের টিকাদানের বিশেষ ক্যাম্পেইনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইতোমধ্যে যারা টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন কিন্তু এখন পর্যন্ত এসএমএস পাননি বা টিকা নিতে পারেননি, তাদেরকে এই ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে টিকা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে যারা টিকা রেজিস্ট্রেশন করে অপেক্ষা করছেন, তাদেরকে এসএমএসের মাধ্যমে আমন্ত্রণ জানিয়ে একযোগে দেশব্যাপী এই টিকা কার্যক্রমের মাধ্যমে টিকা দেওয়া হবে। এতে ৬ হাজার কেন্দ্র থেকে ৮০ লাখ মানুষকে টিকা দেওয়ার টার্গেট নির্ধারণ করা হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, সারা দেশে প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদ হবে টিকাদান কেন্দ্র। এক্ষেত্রে চার হাজার ৬শটি ইউনিয়নে তিনটি করে বুথ, এক হাজার ৫৪টি পৌরসভায় একটি করে বুথ এবং সিটি কর্পোরেশনের ৪৩৩টি ওয়ার্ডে তিনটি করে বুথ স্থাপন করে টিকা দেওয়া হবে। আর প্রবাসীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যে টিকা দেওয়া প্রয়োজন, তার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে যারা নিবন্ধন করেছেন, টিকার জন্য তারা যেই কেন্দ্রে টিকার নিবন্ধন করেছেন, তার পার্শ্ববর্তী যে কেন্দ্রে এই টিকা ক্যাম্পেইন চলবে সেখান থেকেই এই টিকা নিতে পারবেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা কার্যক্রম নিয়ে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া চলমান আছে। তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে রাখা হয়েছে। আর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের প্রায় সবারই টিকা দেওয়া হয়েছে। তবে যারা এখনও দেননি তাদের সবাইকে আহ্বান জানাবো দ্রুত টিকা নেওয়ার জন্য।

প্রবাসীদের সম্পর্কে তিনি বলেন, কয়েকটি জায়গায় প্রবাসীদের বুস্টার ডোজের কথা বলা হয়েছে। তবে WHO এখন পর্যন্ত বুস্টার ডোজের নির্দেশনা দেয়নি। যদি এমন প্রয়োজন হয় তবে আমরা অবশ্যই আমাদের প্রবাসীদের কথা বিবেচনা করব এবং প্রয়োজনে WHO সঙ্গে কথা বলে তাদের জন্য যথাযথ পদক্ষেপ নেবো।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top