‘সাম্প্রদায়িক হামলার’ প্রতিবাদে শাহবাগে বিক্ষোভ

sahabag-n34n2n4.jpg

নিউজ ডেস্ক, ডেইলি সুন্দরবরঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টার পর  শারদীয় দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন স্থানে মন্দিরে-মণ্ডপ ও বাড়িঘরে হামলার প্রতিবাদে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করেছে । অবরোধের কারণে শাহবাগ থেকে পল্টন, সায়েন্স ল্যাব, বাংলামোটর ও টিএসসি অভিমুখী সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

শাহবাগে প্রতিবাদী শিক্ষার্থীরা নানান স্লোগান দিচ্ছেন। স্লোগানে স্লোগানে তারা বলছেন, ‘সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় করতে হবে’, ‘মন্দিরে হামলা কেন, প্রশাসন জবাব চাই।’

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলসহ বিভিন্ন হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা টিএসসি এলাকায় জড়ো হন। সেখান থেকে তারা মিছিল নিয়ে শাহবাগ মোড়ে আসেন।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমান বলেন, ‘গতকাল রাতে রংপুরের ঘটনার প্রতিবাদে শাহবাগ মোড়ে জগন্নাথ হলের ছাত্ররা অবস্থান নিয়েছে। যান চলাচল বেশ কিছুক্ষণ ধরে বন্ধ আছে। হলের প্রভোস্ট স্যারও আছেন।’

অবরোধে যোগ দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মিহির লাল শাহ বলেন, ‘আমরা সবাই বাংলাদেশের মানুষ। সকলের শরীরে একই রক্ত প্রবাহিত হয়। তাহলে এ ধর্মীয় উম্মাদনা কেন? সরকারের প্রতি আমাদের দাবি, এই সাম্প্রদায়িক হামলা বন্ধ করতে হবে। দ্রুত হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক। আমাদের দাবি না মানা পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে।

দাবি তুলে ধরে শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে হামলার শিকার মন্দিরগুলো শিগগিরই প্রয়োজনীয় সংস্কার করতে হবে। বসতবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে লুটপাটের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। হত্যার শিকার পরিবারগুলোকে স্থায়ী ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

অবরোধের কারণে শাহবাগ-কাওরান বাজার, শাহবাগ-সায়েন্সল্যাব, শাহবাগ-গুলিস্তান সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

শাহবাগ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মওদুদ হাওলাদার বলেন, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ইসকনের একটি মানববন্ধন ছিল। মানববন্ধনের পর প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়ে তারা শাহবাগে অবস্থান নেওয়া শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগ দেয়। শিক্ষার্থীদের বোঝানার পর দুইটার দিকে তারা অবরোধ প্রত্যাহার করে চলে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top