তিস্তার পানি ৭০ সেন্টিমিটার বিপৎসীমার ওপরে

58837.jpg

খবর বিজ্ঞপ্তি, ডেইলি সুন্দরবনঃ লালমনিরহাটে তিস্তার পানি বিপৎসীমার ৭০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে। পানির স্রোতে ভেঙে গেছে ব্যারাজের ফ্লাড বাইপাস সড়ক। এলাকায় রেড এলার্ট জারি করেছে প্রশাসন। এর আগে সকালে লালমনিরহাটে তিস্তা নদীর পানি হঠাৎ বৃদ্ধি পাওয়ায় বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছিলো। খুলে দেয়া হয়েছিলো ব্যারেজের ৪৪টি গেট। 

তিস্তা ব্যারাজ এলাকার ফ্ল্যাট বাইপাস সড়কটি ভেঙে ইতিমধ্যেই হাতীবান্ধা উপজেলা শহরের দিকে হু-হু করে পানি ঢুকছে। এতে করে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার সানিয়াজান, গড্ডিমারী, সিন্দুর্না, পাটিকাপাড়া, সিংগিমারী ও ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নের অনেক মানুষ পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়ে। তলিয়ে গেছে আবাদি জমি।

আশপাশের গ্রামে দেখা দিয়েছে বন্যা ও ভাঙনের আশংকা। এরইমধ্যে নদী পাড়ের এলাকার বেশ কিছু পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তলিয়েছে রাস্তাঘাট। ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল এবং সড়কে যাতায়াত ব্যবস্থা। পাহাড়ি ঢলের কারণে লালমনিরহাট সদর উপজেলা, হাতীবান্ধা ও কালীগঞ্জ উপজেলার চরাঞ্চলে পানি প্রবেশ করেছে। পানিতে তলিয়ে গেছে রোপা আমন ক্ষেত।এতে সবজিসহ ফসলের ক্ষতির আশংকা করছে কৃষক।

জানা গেছে, কয়েক দিনের বর্ষণে ও উজানের পাহাড়ি ঢলে মঙ্গলবার রাত থেকে তিস্তার পানি বৃদ্ধি পেতে থাকে। বুধবার সকাল ৯টায় ৬০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও বেলা ১২টার দিকে বিপৎসীমার ৭০ সেন্টিমিটার অতিবাহিত করে। ব্যারাজের ৪৪টি গেট খুলে দিয়ে পানি নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। এদিকে ব্যারাজের ফ্লাড বাইপাস সড়কটি ভেঙে যাওয়ায় হাতীবান্ধা উপজেলার সানিয়াজান, গড্ডিমারী, সিন্দুর্না, পাটিকাপাড়া, সিংগিমারী ও ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নের অনেক মানুষ পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top